City Today News

সন্দেশখালি চিন্তায় রেখেছে তৃণমূলকে

PTI05 04 2023 000257B

সন্দেশখালির ভিডিও দেখিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ভেবেছিল হয়তো, খেলা ঘুরিয়ে দেওয়া গিয়েছে। ভিডিও প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়রা সন্দেশখালির ঘটনা সাজানো বলে প্রচারে নেমে পড়েছিলেন। কিন্তু তার জেরে সেখানকার মহিলাদের একাংশ যেভাবে লাঠি, ঝাঁটা নিয়ে বেরিয়ে এসেছেন, ভুয়ো ভিডিওর অভিযোগ করেছেন এবং নতুন করে নারী নির্যাতনের অভিযোগ জানিয়েছেন পুলিশে এবং সিবিআই ক্যাম্পে, তাতে তৃণমূলের কাছে লড়াইটা কঠিন হয়ে উঠল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। লোকসভা নির্বাচনে সন্দশখালি ইস্যু কেবল ওই এলাকা বা বসিরহাট কেন্দ্রতেই নয়, সারা রাজ্য এমনকী দেশেও আলোড়ন ফেলেছে। ভিডিও সামনে আসার পর তৃণমূল নেতৃত্ব পালটা চাপসৃষ্টির খেলায় নেমেছিলেন।
ভিডিওর উল্লেখ করে সন্দেশখালির ঘটনা সাজানো বলে তৃণমূলের নেতানেত্রীরা বিজেপি নেতাদের মানুষের কাছে ক্ষমা চাইতে বলেছিলেন। কিন্তু নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ থেকে সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী-সহ বিজেপি নেতারা সন্দেশখালি নিয়ে আরও সুর চড়িয়েছেন। রবিবারও পুরুলিয়ায় এক নির্বাচনী জনসভায় মোদি বলেছেন, তৃণমূল শাহজাহানকে বাঁচাতে সন্দেশখালির মানুষকে দোষ দিচ্ছে। চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। ভোট দিয়ে তৃণমূলকে ধ্বংস করবে বোনেরা।
এবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ধামাখালিতে সিবিআইয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পে প্রথম দিনেই এত অভিযোগ জমা পড়েছে যে সন্দেশখালি তৃণমূলের বড় অস্বস্তির কারণ হয়ে উঠেছে। বিজেপি বলার সুযোগ পাচ্ছে, সিবিআই ক্যাম্পে এত মানুষের অভিযোগ বলে দিচ্ছে, সন্দেশখালিতে কী সব ঘটেছিল। সেবার এখানকার মহিলারা রাস্তায় নেমে এসে আন্দোলন গড়ে তোলায় শিবু হাজরা, উত্তম সর্দারদের মতো তৃণমূল নেতারা গ্রেফতার হয়েছিলেন। সন্দেশখালির ‘বেতাজ বাদশা’ বলে পরিচিত তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহানকে পুলিশ গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়েছিল। পরিস্থিতি সামলাতে রাজ্য পুলিশের ডিজি, দুই মন্ত্রীকে সন্দেশখালিতে আসতে হয়েছিল। এত কিছু যেখানে হয়েছে, তা মিথ্যা হয় কী করে?
এবার সিবিআই ক্যাম্পে জমি সংক্রান্ত অভিযোগের পাশাপাশি নারী নির্যাতন, ভয় দেখানো, মারধর এবং পুলিশের বাড়াবাড়ির অভিযোগও জমা পড়েছে। বিজেপি নেত্রী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়াল জানিয়েছেন, পুলিশ যে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করছে, সেই অভিযোগও স্থানীয় মানুষজন জানিয়েছেন।
তৃণমূল যখন নারী নির্যাতনের অভিযোগ সাজানো বলে প্রচার করছে, সেই সময় স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির এক তৃণমূল সদস্যা সন্দেশখালি থানায় ওই সমিতিরই এক দলীয় সদস্যের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি সিবিআই ক্যাম্পে গিয়েও অভিযোগ জানিয়েছেন। দলীয় নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলায় থানা থেকে তাঁর বাড়িতে দু’জন সিভিক ভার্চুয়াল মোতায়েন করা হয়। কিন্তু তা যথেষ্ট নয় বলে তাঁর স্বামী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন। স্থানীয় আরও এক মহিলা নির্যাতনের অভিযোগ জানিয়েছেন। পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করায় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সবমিলিয়ে সন্দেশখালির কাঁটা এখনও তৃণমূলের গলায় বিঁধে রয়েছে।

City Today News

monika and rishi

Leave a comment